লালমনিরহাট বার্তা
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগীতায় চলছে প্রতিবন্ধি ও অটিজম শিশুদের চিকিৎসা
রংপুর অফিসঃ | ১৬ ফেব, ২০২২ ১০:০৩ AM
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগীতায় চলছে প্রতিবন্ধি ও অটিজম শিশুদের চিকিৎসা
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অধিনে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কতৃপক্ষ অটিজম ও প্রতিবন্ধি শিুদের চিকিৎসা করানো হচ্ছে। প্রতিদিন এখানে চিকিৎসা নিতে আসছেন প্রায় শতাধিকশিশু কিশোর যুবক বয়স্করা। প্রায় তিন বছর আগে এ চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু হলেও এখন এর সুফল মানুষের মাঝে এখন ছড়িয়ে পড়েছে। নাম মাত্র খরচে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে উত্তর অঞ্চলের ৫০ হাজারের অধিক মানষিক প্রতিবন্ধী ও অটিজম শিশু। মাত্র ১০ টাকার টিকিট কেটে চিকিৎসা নিতে পারে প্রতিবন্ধী ও অটিজম শিশুরা। পাঁচ সদস্যের চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ টিম প্রতিদিন কাজ করছেন এই কেন্দ্রে।“শিশু বিকাশ কেন্দ্র” নামে এই বিশেষায়িত সেবা কেন্দ্রে সুবিধা পাচ্ছে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার অটিজমও প্রতিবন্ধী শিশুরা।
গত ১৫ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) কুড়িগ্রামের চিলমারী থেকে চিকিৎসা নিতে আসা এক প্রতিবন্ধি শিশুর মা আনিছা বেগম বলেন, আমার সন্তানের বয়স ২৭ মাষ চলছে। সে হাটতে পারেনা ডাক্তার দেখালাম ডাক্তার সাহেব দেখে ঔষধ পত্র সহ ব্যাম দিয়েছে এবং বলেছেন শিশুটি অল্প কয়েক দিনের মধ্যে হাটতে শুরু করবে।
ঠাকুরগাঁও থেকে নিয়ে আসা প্রতিবন্ধি শিশুর পিতা মোঃ আলিম উদ্দিন বলেন,ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের ডাক্তার কে দেখানো হয়েছে। তিনি থেরাপি দিয়েছেন ৭দিনের জন্য । থেরাপি শেষ হলে তার সন্তান অনেকটা সুস্থ হয়ে যাবে।
জয়পুরহাট থেকে নিয়ে আসা প্রতিবন্ধি শিশুর মুন্নি বেগম বলেন, আমার শিশু হাটতে পারতো না ছয় সপ্তাহ চিকিৎসার পর এখন হাটতে পারছে। আমি আবার আমার শিশুকে এখানে চিকিৎসা নিতে নিয়ে এসেছি।
শিশু বিকাশ কেন্দ্রের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ আহাদ শাহ বলেছেন,বলেছেন সঠিক ও উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীদের পুরোপুরি সুস্থ করা সম্ভব।তিনি আরো বলেন,চাইল্ড ফিজিসিয়ান তিনি প্রথমে শিশু টিকে দেখে এবং শিশুটির এফিলিপ্স বা খিচুনি থাকে তিনি সেই রোগের জন্য যে ঔষুধর দরকার তা তিনি প্রয়োগ করেন।
রংপুর জেলা সুজনের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আকরর আলী বলেলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এই বিশেষ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে অভিজ্ঞ জনেরা। তিনি বলেন, উত্তর অঞ্চলে অনেক দরিদ্র মানুষ আছে যারা অর্থের অভাবে তাদের প্রতিবন্ধি ও অটিজম শিশুদের চিকিৎসা করাতে পারেন না। তাদের জন্য এই উদ্বোগ অনেক সুফল নিয়ে আসবে বলে মনেকরি।
রংপুর জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল মতিন জানান, রংপুর জেলায় মোট ৪৬ হাজার ৮৪৪ অসচ্চল প্রতিবন্ধী ব্যক্তির মাঝে প্রত্যেককে প্রতি মাসে ৭৫০ টাকা হারে বছরে ৯ হাজার টাকা প্রতিবন্ধী শিশুও মানুষকে সরকারের ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিম জানান, অনেকে হাটতে পারছেনা,অনেকে কথা বলতে পাছেনা,এটা অথেনটিক সার হিসাবে শিশু বিকাশ কেন্দ্র হিসাবে চালু আছে। সঠিক ও উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীদের পুরোপুরি সুস্থ্য করা সম্ভব বলে তিনি জানান।প্রতিবন্ধি শিশুদের জন্য ব্যতিক্রমী ও অপরিহার্য এক উদ্যোগ নিয়েছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। নাম মাত্র খরচে চিকিৎসা সুবিধা পাচ্ছে উত্তরাঞ্চলের ৫০ হাজারেরও বেশি শারিরীক ও মানসিক প্রতিবন্ধী ও অটিজম শিশুরা। মাত্র দশ টাকার টিকেট কেটে এই কেন্দ্রে চিকিৎসা নিতে নিচ্ছে প্রতিবন্ধী শিশুরা। একজন শিশু বিশেষজ্ঞ, একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ, একজন ফিজিওথেরাপিষ্টসহ ৫ সদস্য বিশিষ্ট বিশেষজ্ঞ টীম কাজ করছে এই কেন্দ্রে। প্রতিদিন উত্তর অঞ্চলের ১৬ জেলার বিভিন্ন জেলা- উপজেলা ও গ্রমাঞ্চল থেকে তাদের চিকিৎসা নিতে ভীড় করছে শিশু সন্তানের অবিভাবকেরা।
এই বিভাগের আরও খবর