লালমনিরহাট বার্তা
পারফরমেন্স সিকিউরিটির টাকা জমার দেয়ার জন্য এবার ঠিকাদারকে চিঠি
সুলতান হোসেন | ১২ অক্টোবর, ২০২১ ১২:৫২ PM
পারফরমেন্স সিকিউরিটির টাকা জমার দেয়ার জন্য এবার ঠিকাদারকে চিঠি
কার্যাদেশ পাওয়ার পর পরই উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে আতাত করে সংশ্লিষ্ট কাজের ঠিকাদার কৌশলে পারফরমেন্স সিকিউরিটির টাকা উত্তোলন করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি চলতি বছরের মার্চ মাসে হলেও বিষয়টি এতদিন ধামাচাপা দিয়েছিলেন আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী। অবশেষে লালমনিরহাট বার্তার অনলাইনে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। প্রতিবেদন প্রকাশের পড় টনক নড়ে প্রকৌশলী অধিদপ্তরের।

অবশেষ সংবাদ প্রকাশের পর সোমবার (১১ অক্টোবর) আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী সোহেল রানার স্বাক্ষরিত পৃথক ৩টি চিঠির মাধ্যমে ওই কাজের পারফরমেন্স সিকিউরিটির টাকা জমা দিয়ে ৭দিনের মধ্যে বিদ্যালয় ৩টির কাজ শুরু করার জন্য ঠিকাদারকে চিঠি দিয়েছেন। ওই চিঠির কপি এ প্রতিনিধির হাতে এসেছে।

আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়ের প্রকৌশলী সোহেল রানার স্বাক্ষরিত এক চিঠি থেকে জানাগেছে, (যার স্মারক নং-৭১৩, তারিখ- ১১/১০/২০২১)পিইডিপি-৪ প্রকল্পের আওতায় দুরাকুটি কলোনী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩ কক্ষ আনুভুমিক সম্প্রসারণ কাজের পারফরমেন্স সিকিউরিটি রিলিজ হওয়া প্রসংগে। ওই পত্রে তিনি লিখেছেন,প্যাকেজ নং-e-Tender/PEDP-4/LMN/Adit 2020-21/W2.02328(Tender Id-496001) এর e-GP প্রক্রিয়ায় যে কোনভাবে পারফরমেন্স সিকিউরিটি অবমুক্ত হয়ে যায়। বিষয়টি উদ্ধতন কর্তৃপক্ষ বিদ্যালয়ের কাজ বাস্তবায়নের স্বার্থে পত্র প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে পারফরমেন্স সিকিউরিটি প্রদান করে কাজ শুরুর জন্য অনুরোধ করা হইল।
অন্যথায় পিপিআর-২০০৮ এর আলোকে উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট আপনার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের (মিলন কনস্ট্রাকশন) বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হবে।

এদিকে পারফরমেন্স সিকিউরিটির সমুদয় টাকা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে আতাত করে গত মার্চ মাসে উত্তোলন করলেও বিষয়টি এতদিন ধামাচাপা দিয়ে রেখেছিলেন প্রকৌশলী সোহেল রানা। গত রবিবার (১০ অক্টোবর) লালমনিরহাট বার্তার অনলাইনে প্রতিবেদন প্রকাশের পর পরই লালমনিরহাট এলজিইডির নির্বাহী আশরাফ আলী খান উপজেল প্রকৌশলী সোহেল রানাকে শোকজ করেছেন। শোকজে বলা হয়েছে, কাজ না করার আগেই কেন পারফরমেন্স সিকিউরিটি কেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হলো পত্র প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্য সন্তোষজনক জবাব দিতে বলা হয়েছে।
ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার মিলন আহমেদ পত্র প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী সোহেল রানার মোবাইল ফোনে একাধিকার যোগাযোগের চেষ্টা করেও ফোন রিসিভ না করায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।
এই বিভাগের আরও খবর