ডেল্টা প্লানের আওতায় তিস্তাসহ দেশের অন্যান্য নদী খনন করা হবে - প্রধানমন্ত্রী
স্টাফ রিপোর্টার: স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ডেল্টা প্লানের আওতায় তিস্তাসহ দেশের অন্যান্য সকল নদ-নদী খনন করা হবে। সেই সাথে নদীর বিস্তৃতি কমিয়ে আনা হবে। তিনি আরও বলেন, ‘লালমনিরহাটে প্লেন তৈরি হবে এতে কোনো সংশয় নেই। এভিয়েশন ও এরোস্পেস ইউনিভার্সিটি হলে পুরো এলাকার চিত্র পাল্টে যাবে।’
প্রধানমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে গত ১৪ জানুয়ারি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে সরাসরি বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম এসব এলাকা এক সময় খুবই অবহেলিত ছিল। এ কারণে লালমনিরহাটে এভিয়েশন ও এরোস্পেস ইউনিভার্সিটি করা হয়েছে। সেখানে এই একটি প্রতিষ্ঠানকে ঘিরে আরও ভালো ভালো প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। এছাড়া কুড়িগ্রামে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করা হচ্ছে।
উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু।  অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব ড. আহম্মেদ কায়কাউস, স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় সচিব মোঃ জয়নুল বারী। অনুষ্ঠানে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কার্যক্রমের উপর ভিডিও প্রদর্শন করা হয়।
লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক জানান, ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় লালমনিরহাটে ঘরে বসে এক লাখ ২৫ হাজার ৭০২ জন ভাতা সুবিধা পাবে। আগে দূর-দূরান্ত থেকে তাদের জেলা ও উপজেলায় আসতে সময় ও অর্থ ব্যয় হতো। এখন ভাতাভোগীরা ঘরে বসেই টাকা পাবে। তিনি আরও জানান, মুজিববর্ষে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে এক হাজার পরিবার পাকাঘর জমিসহ পেতে যাচ্ছে।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা, অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ ও ‘বিকাশ’র মাধ্যমে গভর্নমেন্ট টু পারসন পদ্ধতিতে ভাতাভোগীর কাছে প্রেরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।
জাতীয় বার্তা- এর অন্যান্য খবর