লালমনিরহাটে সতী নদীর বালু বিক্রয়ের দায়ে দুই জনের জেল
স্টাফ রিপোর্টার: লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নের মারাইহাট সতীনদীর বালু বিক্রয়ের দায়ে ভ্রাম্যমান আদালত দুই জনেকে জেলে প্রেরণ করেছেন।
আজ বৃহস্পতিবার ১ এপ্রিল সন্ধায় সদর উপজেলার নিবার্হী অফিসার উত্তম কুমার রায় সতীনদী তীরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় নদীর তীর থেকে বালু পরিবহনের ৫টি ট্রাক্টরের চাকার হাওয়া ছেড়ে  দেয় ও ২ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ট্রাক্টর চালক মন্ডলেরহাট গ্রামের এরফান আলীর ছেলে মোক্তার আলী (২২)কে ১৫ দিন ও গোকুন্ডা ইউনিয়নের ঘুড়িয়াদহ এলাকার সবেদ আলীর ছেলে হেলপার আজিজুল হক (২৩) কে ১০ দিন কারাদন্ড আদেশ দেন। উল্লেখ্য, এই ট্রাক্টরটির মালিক গোকুন্ডা ইউনিয়নের মন্ডলেরহাট এলাকার আজিজার রহমানের  পুত্র আফজাল হোসেন।
উপজেলা নিবার্হী অফিসার জানায়, অবৈধ্য ভাবে বালু উত্তোলনকারী ও নদী  থেকে বালু বিক্রয়কারীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযান চলমান থাকবে।
উল্লেখ্য, লালমনিরহাট জেলার তিস্তা সড়ক সেতুর নীচ থেকে প্রতিদিন সন্ধার পর স্থানীয় কতিপয় বালু খেকোর সহযোগিতায় ২০/২৫ টি ট্রাক্টর দিয়ে অবাধে বালু তুলে বিক্রয় করছে। রাজনৈতির নাম ভাঙ্গিয়ে প্রশাসনের সহযোহিতায় এসকল বালু খেকো অবাধে তিস্তা নদী  থেকে বালু উত্তোলন করায় আগামী বর্ষা মৌসুমে নদী ভাঙ্গনের ফলে কয়েকশত পরিবার বসতবাড়ী, আবাদি জমি ও গাছপাল হারিয়ে পথে বসবে। এ সকল বালু খেকোর বিরুদ্ধে জেলা, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগের সর্বাত্বক অভিযান পরিচালনা করা প্রয়োজন।
জাতীয় বার্তা- এর অন্যান্য খবর