লালমনিরহাট বার্তা
আমরা বসার পর শুনছি নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা নেই -নির্বাচন কমিশনার
রংপুর অফিস | ২৬ নভেম্বর, ২০২২ ১২:০৯ PM
আমরা বসার পর শুনছি নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা নেই -নির্বাচন কমিশনার

নির্বাচনে ইভিএম নিয়ে এক প্রার্থীর শঙ্কার বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশিদা সুলতানা বলেছেন, আমরা বসার পর থেকেই শুনছি যে, নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা নেই। শুধু নির্বাচন কমিশন একা আস্থা তৈরি করবে তা নয়, সবাইকে আস্থা তৈরি করতে হবে। কারো না কারোর প্রতি বিশ্বাস থাকতে হবে। আমরা ভালো ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে চাই এ আস্থা-বিশ্বাস প্রার্থীদের মনের ভেতর আনতে হবে।শনিবার দুপুরে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে তিনি এ আহ্বান জানান।

নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা আসার পর ব্যাপকভাবে ইভিএমের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছি। ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা জেলাপরিষদ সহ বিভিন্ন নির্বাচনে ইভিএমের ব্যবহার করেছি। ইভিএম বা যন্ত্রে কিন্তু কোনো ক্রটি নেই।যন্ত্রের ভেতরে কোনরকম কারসাজির সুযোগ নেই এটা আমরা নিশ্চিত।নিশ্চিত হয়েই জাতীয় নির্বাচনে সর্বোচ্চ দেড়শো আসনে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। শুধু এটুকু বলবো, যন্ত্র কখনও খারাপ হয় না, যন্ত্রের পেছনে হয়তো কেউ কেউ দুষ্কর্ম করতে চান। আমরা নির্বাচন কমিশন থেকে এমন দুষ্কর্মকে কখনো প্রশ্রয় দেইনি এবং দেবনা। অন্তত নির্বাচন কমিশনের প্রতি এটুকু আস্থা রাখতে পারেন।

রংপুর সিটি করর্পোরেশন নির্বাচনে ইভিএম নিয়ে এক প্রার্থীর শঙ্কার বিষয়ে রাশিদা সুলতানা বলেন, শুধু উনি কেন, ইভিএম নিয়ে অনেকেই শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। আমি শুধু এটুকু বলবো, নির্বাচন কমিশনের মতো ইভিএমেও আস্থা আনতে হবে।

রংপুর সিটি করর্পোরেশন নির্বাচনকে শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করা হবে জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশিদা সুলতানা বলেন, আমরা এই নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। নির্বাচন সফল করতে যা যা করার দরকার সব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।সারাদেশে রংপুরের সুনাম আছে। সেই সুনাম অক্ষুন্ন রাখার চেষ্টা করছি। এজন্য আমি রংপুর সিটি করর্পোরেশনে অংশ নেওয়া সব প্রার্থী ও ভোটারসহ নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করছি।আগামী ২৭ ডিসেম্বর রংপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের আরও খবর