লালমনিরহাট বার্তা
নামেই নারী উন্নয়ন ফোরাম! এক বছরেও হয়নি একটি সভা,বরাদ্দে সীমাবদ্ধ
স্টাফ রিপোর্টার : Jun 1, 2021, 3:27:09 PM সময়ে

নামেই নারী উন্নয়ন ফোরাম! এক বছরেও হয়নি একটি সভা,বরাদ্দে সীমাবদ্ধ

নামেই নারী উন্নয়ন ফোরাম,যার নেই কোন কার্যক্রম। শুধু সরকারী বরাদ্দেই সীমাবদ্ধ। প্রতিবছরই এ অর্থ তছরুপের অভিযোগ পদাধিকার বলে সংগঠনের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন আক্তারের বিরুদ্ধে। 

জানাগেছে, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে ২০২০- ২১ অর্থবছরে নারী উন্নয়ন ফোরামের জন্য ফাউচারমূলে  এক লক্ষ ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আর এ টাকা ফউচার মূলে খরচ করে উত্তোলন করতে পারবেন। কিন্ত সংগঠনের কোন কার্যক্রম দৃশ্যমান না থাকায় বরাদ্দকৃত অর্থ আটকে দিয়েছেন এডিপি'র সভাপতি ও আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ( ভারপ্রাপ্ত) চিত্ত রঞ্জন বর্মন। 

সরেজমিন ঘুরে জানাগেছে,  নারী উন্নয়ন ফোরামের পদাধিকার বলে সভাপতি উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন আক্তার। তিনি ক্ষমতায় আসার পর থেকে নারী উন্নয়ন ফোরামের কোন কার্যক্রম দৃশ্যমান নেই বললেই চলে। কিন্তু প্রতিবছরই এ সংগঠনের নামে লাখ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয় ঠিকই।  অভিযোগ রয়েছে, বরাদ্দের পুরো টাকাটাই ভুয়া ভাউচার দিয়ে আত্নসাত করেন সংগঠনের সভাপতি ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন আক্তার। তিনি অকপটে স্বীকারও করেন গত এক বছরেও এ সংগঠনের কোন মিটিং করা হয়নি। তার দেয়া তথ্য মতে, উপজেলায় এ সংগঠনের আওতায় ৩৪ জন মহিলা সদস্য রয়েছেন। এসব সদস্যদের নিয়ে প্রতি ২ মাস পর পর মিটিং করার কথা থাকলেও তা কখনও করা হয়নি। তবে বরাদ্দকৃত অর্থ উত্তোলন করার পর মিটিং করা হবে বলে সভাপতি দাবী করেন।   

এদিকে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) প্রকল্প থেকে প্রতিবছর নারী উন্নয়ন ফোরামের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ উঠলেও এবিষয়ে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ না থাকায় প্রতিবছরই বরাদ্দ দেয়া হয় এ সংগঠনের নামে। 

নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি ও আদিতমারী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইসচেয়ার জেসমিন আক্তার বলেন, এক বছর পর পর এডিপি থেকে যে অর্থ  বরাদ্দ দেয়া  তা দিয়েই সেমিনার করা হয়। তিনি আরো বলেন, গত বছরেও কোন মিটিং করা হয়নি। এ সংগঠনের কার্যক্রম কি?  এমন প্রশ্নের জবাবে এ প্রতিনিধিকে তিনি বলেন, প্রতি ২ মাস পর পর মহিলাদেরকে নিয়ে এলাকার বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সভা করার কথা থাকলেও তা কখনও করা হয়নি এমনটি দাবী তার।

আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) চিত্ত রঞ্জন বর্মন বলেন, নারী উন্নয়ন ফোরামের নামে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ঠিকই কিন্তু এ সংগঠনের কোন অস্তিত্ব কিংবা কার্যক্রম না থাকায় বরাদ্দকৃত অর্থ আটকে রাখা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, গত ২ বছরেও নারী উন্নয়ন ফোরামের কোন কার্যক্রম চোখে পড়েনি।