লালমনিরহাট বার্তা
৩০ বছরের অপেক্ষার অবসান
বার্তা অনলাইন ডেস্কঃ | ২২ জুন, ২০২২ ৬:৩২ AM
৩০ বছরের অপেক্ষার অবসান
ঘরের মাঠে সর্বশেষ ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কোনো দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। ৩০ বছর পর আবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি করতে সক্ষম হলো তারা। যেটা পারেননি লংকান কিংবদন্তী সাঙ্গাকারা, মাহেলা, মুরালিধরণরা। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সেই কাজটি করে দেখিয়েছে দাসুন শানাকার লঙ্কান বাহিনী।
গতকাল কলম্বোয় পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থটিতে ৪ রানে জিতেছে শ্রীলঙ্কা। এর মধ্য দিয়ে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে স্বাগতিকরা এগিয়ে গেলো ৩-১ ব্যবধানে। ২০১০ সালের পর এই প্রথম অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডেতে সিরিজ জয়ের স্বাদ পেয়েছে তারা। আর ঘরের মাঠের সর্বশেষ সিরিজ জয় এসেছিল ৩০ বছর আগে।
ম্যাচের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে শ্রীলঙ্কার শুরুটা ছিল বাজে। প্রথম ৩৪ রানে হারায় টপ অর্ডারের তিন ব্যাটার- নিরোশান ডিকওয়েলা (১), পাথুম নিসাঙ্কা (১৩) ও কুশল মেন্ডিসকে (১৪)। তবে ওই ধাক্কা স্বাগতিকরা দারুণভাবে কাটিয়ে ওঠে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ও আসালঙ্কার ব্যাটে। চতুর্থ উইকেটে তারা ১০১ রানের জুটি গড়েন। ধনাঞ্জয়ার বিদায়ে ভাঙে জুটি। এই ব্যাটার ৬১ বলে ৭ বাউন্ডারিতে খেলেন ৬০ রানের ইনিংস। তবে একপ্রান্ত আগলে রাখেন আসালঙ্কা। ২৪ বছর বয়সী এই ব্যাটার তুলে নেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। প্যাট কামিন্সের শিকার হওয়ার আগে খেলেন ১১০ রানের ইনিংস। ১০৬ বলের ইনিংসটি তিনি সাজান ১০ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায়। এরপর হাসারাঙ্গার ২০ বলে ২১ ও দুনিথ ভেল্লালাগের ১৯ রানে ২৫৮ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা।

মাঝারি এই রান তাড়ায় বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়াও। শুরুতেই ওপেনার ফিঞ্চকে হারায় (০)। ওপেনিংয়ে নামা ডেভিড ওয়ার্নার ছাড়া আর কেউ থিতু হতে পারেননি। ৯৯ রানের ইনিংসে একাই দলকে টানেন তিনি। তিনি ফিরলে শেষ দিকে চেষ্টা করেও বাকিরা আর ম্যাচ বাঁচাতে পারেনি। মার্শ ২৬, লাবুশেন ১৪, কেয়ারি ১৯, হেড ২৭, ম্যাক্সওয়েল ১, গ্রিন ১৩, কামিন্স ৩৫ রান করেন। শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় অ্যারন ফিঞ্চদের।
এই মাঠেই সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে আগামী শুক্রবার ফের মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কা।(সূত্র: ইত্তেফাক)
এই বিভাগের আরও খবর