লালমনিরহাটে প্রতিপক্ষের বসত বাড়িতে হামলা ॥ ভাংচুর
স্টাফ রিপোর্টার: লালমনিরহাটে পূর্ব শত্রুতার জেরে বসত বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করেছে প্রতিপক্ষ দূর্বৃত্তরা। মামলায় মাহবুবুর রহমান মজনু নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের সাতপাকটী গ্রামে এঘটনা ঘটে। এ ঘটনায়  ৩ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা হয়েছে।
এজাহার সুত্রে জানা গেছে, ইউনিয়নের সাতপাকটী গ্রামের খোরশেদ আলীর পুত্র মাহবুবুর রহমান মজনু তফসিল বর্ণিত সম্পত্তিতে একচালা ও একটি চৌচালা টিনের ঘর উত্তোলন করে এবং বাড়ির চার পাশে ৮শতটি ইউক্লিপটার্স ও ২শত ৫০টি মেহগনি চারা গাছ রোপন করে ২৮ থেকে ২৯ বছর পূর্ব হতে ভোগ দখল করে আসছেন। পাশ^বর্তী পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের মৃত জাবেদ আলীর পুত্র তৈয়ব আলী (৬৫) ও শাহজাহান আলী এবং কচিমুদ্দিনের পুত্র রব্বানী (২৮) সহ পরস্পর যোগসাজসে ওই তফসিল বর্ণিত সম্পত্তি দখলের নানা কৌশল অবলম্বন করতে থাকে। একপর্যায়ে বে-আইনীভাবে গত ৬ সেপ্টেম্বর বিকালে তারা ভাড়াটে উশৃংখল অজ্ঞাতনামা ১৪ থেকে ১৫জন দেশীয় ধারালো অস্ত্র  হাতে জমিতে প্রবেশ করে বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে। এসময় একা পেয়ে মামলার বাদী মাহবুবুর রহমান মজনুকে এলোপাতাড়ি মার ডাং করে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। হামলায় জমির মধ্যভাগে থাকা টিনশেড ঘরের চালা ভাংচুর ও ঘরের মালামালসহ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন এবং জমিতে থাকা পঞ্চাশটি মেহগনি চারা ও ২০০টি ইউক্লিপটার্স চারা গাছ যার মূল্য ৩৭ হাজার ৫০০ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে মামলার বাদী দাবি করেছেন। এ ঘটনায় আহত মাহবুবুর রহমান মজনু বাদী হয়ে তৈয়ব আলী (৬৫), শাহজাহান আলী (২৮) ও রব্বানী (৩৭)-এর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের নামে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
সদর থানার ওসি শাহ আলম জানান, এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এক নজরে- এর অন্যান্য খবর