লালমনিরহাটে ধরলা নদীতে পড়ে নিখোঁজ কিশোরের দুই দিনেও খোঁজ মিলেনি
স্টাফ রিপোর্টার: জেলা সদরের মোগলহাটের ধরলা নদীতে চাচার সাথে মাছ ধরতে গিয়ে নদীর ¯্রােতের টানে নিখোঁজ ১৩ বছরের কিশোর সুজনের সন্ধান দুই দিন অতিবাহিত হলেও খোঁজ মিলেনি। এখনো ধরলা পাড়ে স্বজনদের আহাজারি ও অপেক্ষা চলছে।
জানা গেছে, সোমবার ৩রা আগষ্ট লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়ন সীমান্তবর্তী ধরলা নদীতে দুপুর দেড়টার দিকে চাচা আবুল হোসেনের সাথে ভাতিজা সুজন (১৩) নদীতে নেমে মাছ ধরতে ছিল। এ সময় আচমকা ¯্রােতে ভাতিজা সুমন ভেসে যায়। চাচা লাফ দিয়ে পানিতে নেমে ভাতিজা কে উদ্ধারের আপ্রাণ চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে লালমনিরহাট ফায়ার সার্ভিস ঘটনা স্থলে আসেন, তারা ব্যার্থ হলে কুড়িগ্রাম থেকে তিন সদস্যের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে এসে পানিতে ডুবে যাওয়া সুজন কে উদ্ধার কার্যক্রম চালান। ঘন্টা তিনেক খোঁজাখুঁজির পর অভিযান স্থগিত করে ডুবুরির দল চলে যায়।
নিখোঁজ সুজন মোগলহাট বাজারের দক্ষিন পার্শ্বে ছবিল হোসেনের ছেলে। ছবিল হোসেন ঢাকায় গার্মেন্টেস কর্মরত রয়েছে। ছেলের নিখোঁজের সংবাদ পেয়ে বাবা এসেছেন। নিখোঁজ সুজনের মা বাবা লাশ না পাওয়ায় ধরলা নদীর ধারে অপেক্ষা করছেন।


এক নজরে- এর অন্যান্য খবর