ধর্ষণ করে ভিডিও স্বামী ও ভাইয়ের কাছে পাঠানোর অভিযোগ ধর্ষক গ্রেফতার
রংপুর অফিস: রংপুর নগরীতে গৃহ বধুকে কৌশলে ডেকে এনে ধর্ষণ ও ভিডিওচিত্র ধারণ করেছে এক ধর্ষক। এই ধারন করা ভিডিও ওই নারীর স্বামী ও ভাইয়ের কাছে পাঠিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।এমন অভিযোগে নাজমুল হোসাইন নাঈম নামের এক যুবককে শনিবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধর্ষকের বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার দামোদরপুর গ্রামে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। ভিডিও এবং স্থিরচিত্রগুলো উদ্ধার করেছে।
রংপুর মেট্রোপলিটান পুলিশের তাজহাট থানার ওসি রোকনুজ্জামান গত কাল শনিবার গ্রেফতার করার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, নাজমুল হোসাইন নাঈম নামে এক যুবকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় মিঠাপুকুর উপজেলার একটি গ্রামের ওই গৃহবধুর। গত১৬ ফেব্রুয়ারি ওই গৃহবধুকে রংপুর নগরীর মর্ডান মোড় এলাকায় মোবাইল ফোনে ডেকে আনে যুবক ফাহিম। পওে গৃহবধুকে নগরীর তাজহাট থানার রংপুর মডেল কলেজের সামনের একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে  ধর্ষণ করে এবং কৌশলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও করে রাখে।এরপর ওই ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে বিভিন্ন সময় গৃহবধুকে দেখা করার নামে আসতে বাধ্য করার চেষ্ট করতো ও উত্ত্যক্ত করে আসছিল। তার  প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধুর স্বামী ও ভাইয়ের মোবাইলে ধারণ করা ওই ভিডিও চিত্র পাঠায় নাঈম। সেইসঙ্গে এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।
এ ঘঁনায় গৃহবধু বাদী হয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের তাজহাট থানায় নারী নির্যাতন ও পর্ণগ্রাফি আইনে মামলা দায়ের করে। পুলিশ মামলার সূত্র ধরে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তাজহাট থানা পুলিশ ও পীরগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় নাঈমকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওসার বলেন, পুলিশের একটি টিম আসামিকে গ্রেফতার করতে মাঠে নামে। সেই ধারাবাহিকতায় তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় পীরগঞ্জ উপজেলা থেকে ঘটনার মূলহোতা নাঈমকে গ্রেফতার করা হয়। ফাহিমের মোবাইল ফোন, ওই ভিডিও এবং স্থিরচিত্রগুলো উদ্ধার করে তা জব্দ করা হয়েছে।
বিভাগীয় বার্তা- এর অন্যান্য খবর