স্বপ্ন আছে, সাধ্য নেই
সবুজ আলী আপন: নানা কস্ট আর দুর্দশাকে সাথী করে বিনাবেতনে অধ্যয়ন সহ কারো কারো সহযোগিতা পেয়ে এসে এ বছর বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়ে মাধ্যমিকের গন্ডিটার সফল পাড়ি দিয়েছে জোবায়ের হোসেন। এবার উচ্চশিক্ষার উচ্চস্বপ্ন নিয়ে উচ্চপথে দীর্ঘ পথচলা। বিষয়টি ভাবতেই ঘাবড়ে যান জুবায়ের ও তার মা বাবা এবং শিক্ষার্থী বড় দু'বোনও।
লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার গোড়ল গ্রামের গোড়ল দাখিল মাদরাসার নৈশ প্রহরী মো. ফজলুল হক ও গৃহিনী নুরুন্নাহার বেগমের ২ কন্যা ও ১ পুত্র সন্তানের মধ্যে জোবায়ের সর্বকনিষ্ঠ। একদিকে দারিদ্র্যতা অন্যদিকে বড় দুবোন কামিল(মাস্টার্স) ও ইন্টারমিডিয়েট এর শিক্ষার্থী হওয়ায় অর্থাভাবে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে জেএসসিতেও গোল্ডেন জিপিএ-৫ অর্জনকারী অদম্য মেধাবী যোবায়েরের উচ্চ  শিক্ষা লাভ একই সাথে ডাক্তার হয়ে অসহায় দরিদ্র
 মানুষের সেবাদানের বাসনাও। তবে জোবায়েরের স্বপ্নপূরনে পরিবারের সম্বল বলতে যা আছে তা বিলিয়ে দিতেও প্রস্তত দরিদ্র বাবা মা। কিন্তু তাতেও স্বপ্নপুরণের
পথচলা কতটুকু সফল হবে সে প্রশ্নই দেখা দিচ্ছে বার বার।
এ অবস্থায় মেধাবী জোবায়েরকে সহযোগিতা করতে পরিবারের পক্ষ থেকে সোনালীব্যাংক কালীগঞ্জ শাখায় ০০২০৫০৫৩৯ নম্বরে একটি ব্যাংক হিসাব ও ০১৭৫২৬৯০৫০১ নম্বরের বিকাশ এ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। শিক্ষানুরাগীদের কেউ কেউ এগিয়ে এলে হয়তো সাধারন মানুষের চিকিৎসা সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করার লালিত স্বপ্ন যথাযথ পূরণ করে কথা রাখবে মেধাবী জোবায়ের হোসেন।
এক নজরে- এর অন্যান্য খবর