রংপুর-৩ উপনির্বাচনে সাদ এরশাদ জয়ী
স্টাফ রিপোর্টার: আজ ৫ অক্টোবর রংপুর ৩ উপ-নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে ৫৮ হাজার ৮শত ৭৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় পার্টি ও মহাজোট প্রার্থী হিসেবে প্রয়াত সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছেলে রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছেন ১৬৯৪৭ ভোট। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ পেয়েছেন ১৪৯৮৪ ভোট। মোট ভোট পড়েছে ২১ দশমিক ৩১ শতাংশ।
চুড়ান্ত ফলাফলে ৫৮হাজার ৮শ’৭৮ ভোট পেয়ে বে-সরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাদ এরশাদ।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছেন ১৬হাজার ৯শ’ ৪৭ ভোট। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ পেয়েছেন ১৪হাজার ৯শ’ ৮৪ ভোট।এ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান ধানের শীষ প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ মোটরগাড়ি, এনপিপির শফিউল আলম আম প্রতীক, গণফ্রন্টের কাজী শহীদুল্লাহ মাছ প্রতীক এবং খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল দেয়াল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। ভোট পান।রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করর্পোরেশন নিয়ে গঠিত এ আসনে মোট ভোটার চার লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন এবং নারী ভোটার দুই লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন।এ আসনে মোট ভোট শতকরা ২২ দশমিক৮৬ ভোট কাউন্ড হয়েছে।
উল্লেখ্য এ আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১ লাখ ৪২ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছিলেন ৫৩ হাজার ৮৯ ভোট। ভোট পড়েছিল ৫২ দশমিক ৩১ শতাংশ।
এইচএম এরশাদ গত ১৪ জুলাই চিকৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা যান। তার পরিপ্রেক্ষিতে সংসদ সচিবালয়ের সচিব (রুটিন দায়িত্ব) আ. ই. ম গোলাম কিবরিয়া মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রংপুর-৩ আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে ১ সেপ্টেম্বর উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন।
এ দিকে জাপা মাহাসচিব তৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন,এ বিজয় এরশাদের বিজয়। এবিজয় রংপুর বাসীর বিজয়। আমরা সরকারী দল বিরোধী দল এক হয়ে রংপুর তথা দেশের উন্নয়নে কাজ করবো।


জাতীয় বার্তা- এর অন্যান্য খবর